1. admin@probahomanbangla24.com : admin :
শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:১০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
বরিশাল জেলা অনলাইন প্রাথমিক শিক্ষা পেইজে লাইভ ক্লাস এ পাঠদানকারী শিক্ষকদের সম্মাননা স্মারক প্রদান অনুষ্ঠান। বগুড়া ১ আসনের সংসদ সদস্য করোনা পজিটিভ। কাতারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের বৈঠক। আজকের খুদে বিজ্ঞানীরাই একদিন বিজ্ঞান প্রযুক্তির উৎকর্ষতার মাধ্যমে দেশকে সমৃদ্ধ করবে—আলী আজম মুকুল এমপি বরিশালে মুজিব শতবার্ষি উপলক্ষে মোবাইল সার্ভিসিং ইলেকট্রনিক এন্ড হাউস ওয়্যারিং ও সেলার সিস্টেম প্রশিক্ষণ এর উদ্বোধন। ভোলায় নব-নির্বাচিত আলীনগর ইউনিয়ন বিএনপি’র কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠিত। আইজিপি কর্তৃক বাস উপহার পেল কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশ আগৈলঝাড়ায় ক্ষুদ্র প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ আগৈলঝাড়ায় প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির কমিটি গঠন গৌরনদী উপজেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এ বছর ইনক্রিমেন্ট দেবেন না গার্মেন্টস মালিকরাঃ অাইন স্থগিতের অাবেদন।

প্রতিবেদকের নাম
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৬ নভেম্বর, ২০২০
  • ১৯ বার পঠিত

 

– মিজানুর রহমান।

আইন অনুযায়ী ডিসেম্বর মাসে গার্মেন্টস শ্রমিকদের ৫ শতাংশ হারে মজুরি বৃদ্ধি (ইনক্রিমেন্ট) করার কথা। গার্মেন্টস মালিকরা বলছেন করোনার কারণে তৈরি পোশাক রপ্তানিতে মন্দআ যাচ্ছে এ জন্য এ বছর ৫ শতাংশ হাওে মজুরি বৃদ্ধি করা যাবে না। তপাশাপাশি ৩ বছরের জন্য শ্রম আইনও স্থগিত চান গার্মেন্টস মালিকরা।

গার্মেন্টস খাতকে সঙ্কট চারদিক দিয়ে ঘিরে ধরেছে। করোনাভাইরাসের কারণে গত ৮ মাস ধরে ধুঁকছে দেশের রফতানি বাণিজ্যের প্রধান এই খাত। শিল্প মালিকরা শ্রমিকদের ঠিকমতো বেতন দিতে পারছেন না। সরকারের দেওয়া প্রণোদনা প্যাকেজের ঋণ পরিশোধের সময় চলে এসেছে, কিন্তু সেটিও এখন দিতে পারছেন না শিল্প মালিকরা। এরই মধ্যে যখন কিছুটা ঘুরে দাঁড়াচ্ছিল শিল্পটি ঠিক তখনই এলো করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কা। এখন নতুন সঙ্কট হিসেবে দেখা দিয়েছে শ্রমিকদের ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট।
শ্রম আইন অনুযায়ী প্রতিবছরের ডিসেম্বর মাসে শ্রমিকদের মজুরি নিয়মমাফিক ৫ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে। এ সঙ্কটকালীন সময়ে শিল্প মালিকরা শ্রমিকদের এই ইনক্রিমেন্ট দিতে অনীহা প্রকাশ করছেন। গার্মেন্টস মালিকদের শ্রম আইনের এই বিধান আগামী ৩ বছরের জন্য স্থগিত চেয়ে শ্রম মন্ত্রণালয়ে আবেদন জানাবেন বিজিএমইএ ও বিকেএমইএ নেতারা। তবে শ্রমিক নেতারা বলছেন, ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট শ্রমিকদের আইনি অধিকার। এই অধিকার থেকে শ্রমিকদের কোনোভাবেই বঞ্চিত করা ঠিক হবে না।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ নিটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিকেএমইএ) প্রথম সহসভাপতি মোহাম্মদ হাতেম বলেন, সর্বশেষ ২০১৮ সালে যখন গার্মেন্টস শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ৮ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়, তখন সেটিই আমাদের পক্ষে মেনে নেওয়া কঠিন ছিল। শুধু প্রধানমন্ত্রীর অনুরোধে আমরা সে মজুরি মেনে নিয়েছিলাম, কিন্তু ওই মজুরি দেওয়ার মতো সামর্থ্য শিল্প মালিকদের ছিল না। তখনই বলা হয়েছিল, এখন থেকে প্রতিবছর শ্রমিকদের মজুরি ৫ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে। গত দুই বছর সেটি কষ্ট হলেও মালিকরা দিয়েছেন, কিন্তু এ বছর ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট দেওয়া শিল্প মালিকদের পক্ষে কোনোভাবেই সম্ভব না। করোনার কারণে গার্মেন্টস শিল্প ভালো নেই, মালিকরাও ভালো নেই। তাই আমরা আগামী দুই-তিন দিনের মধ্যেই শ্রম মন্ত্রণালয়ে ৫ শতাংশ মজুরি বৃদ্ধির বিধান অন্তত ৩ বছরের জন্য স্থগিত চেয়ে আবেদন জানাব। একই সঙ্গে এই আবেদনের অনুলিপি বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এবং প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিবের কাছে পাঠাব, যাতে বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর নজরে আসে।

তবে শ্রমিক নেতারা মালিকদের এই সিদ্ধান্তের চরম বিরোধিতা করছেন। এ বিষয়ে জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিকলীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম রনি বলেন, প্রতিবছর ৫ শতাংশ মজুরি বৃদ্ধি শ্রমিকদের আইনি অধিকার। এই অধিকার থেকে মালিকরা শ্রমিকদের বঞ্চিত করলে সেটি মোটেই ঠিক হবে না। আইনে আছে এটি দিতেই হবে। কারণ করোনার কারণে গার্মেন্টস মালিকরা যেমন সমস্যায় আছে, তার চেয়ে বেশি সমস্যায় আছে শ্রমিকরা। তারা যা বেতন পান তা দিয়ে এই দুঃসময়ে চলা কঠিন। তাই ৫ শতাংশ মজুরি বৃদ্ধি করা ছাড়া কোনো বিকল্প নেই। মজুরি বৃদ্ধি না করলে শ্রমিক অসন্তোষ দেখা দিতে পারে, তখন এর দায় কে নেবে। তাই মালিকদের এই সিদ্ধান্ত আমরা মানতে পারছি না।

বাংলাদেশে করোনার আঘাত হানে গত ৮ মার্চ। এরপর ২৫ মার্চ থেকে দেশ ৬৩ দিনের লকডাউনে চলে যায়। করোনার শুরুতেই যে কয়টি খাতে সবার আগে ধাক্কা লাগে তার মধ্যে শীর্ষে ছিল গার্মেন্টস শিল্প। পোশাকের রফতানি আদেশ একেবারে বন্ধ হয়ে যায়। পুরনো আদেশগুলো বাতিল হয়ে যায়। সবমিলে গত ৮ মাসে ৪ থেকে ৫ বিলিয়ন ডলারের রফতানি আদেশ বাতিল হয় গার্মেন্টস শিল্পে। সঙ্কটে পড়ে কয়েকশ গার্মেন্টস কারখানা বন্ধ হয়ে গেছে। বেকার হয়েছে দেড় লাখেরও বেশি শ্রমিক। এ সঙ্কট থেকে এখনও বের হতে পারেনি গার্মেন্টস শিল্প।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© probahomanbangla.com © 2020
কারিগরি সহযোগিতায়: মোস্তাকিম জনি